চুল কেটে দেয়া সেই শিক্ষিকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি, আবারো উত্তপ্ত ক্যাম্পাস

0
24

সিরাজগঞ্জে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিনের স্থায়ী বহিষ্কারের দাবিতে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাস। ফারহানা ইয়াসমিনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত ছাড়াই রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট বৈঠক মুলতবি করায় আবারও আমরণ অনশন ও লাগাতার অবস্থান ধর্মঘট শুরুর ঘোষণা দিয়ে এ কর্মসূচি শুরু করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ঢাকা অফিসে এ সিন্ডিকেট বৈঠক শুরু হয়। টানা ৩ ঘণ্টা বৈঠক চলার পর কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই রাত সাড়ে ৭টার দিকে বৈঠক শেষ হয়। বৈঠক শেষে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত ভিসি আব্দুল লতিফ ও রেজিস্ট্রার সোহরাব আলী মোবাইল ফোনে শাহজাদপুরের কান্দাপাড়ার প্রশাসনিক ভবনের সামনে অপেক্ষমান শিক্ষার্থীদের বিষয়টি অবহিত করেন।
এরপরই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের নেতৃবৃন্দ জরুরি বৈঠক করে আবারও আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নেন। এরপর তারা ২২ অক্টোবর রাত ৮টা থেকে আমরণ অনশন ও লাগাতার অবস্থান ধর্মঘট শুরুর ঘোষণা দিয়ে এ কর্মসূচি পালন করেন। তারা দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অনশন ও একাডেমিক ভবনের সামনে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করেছেন।

আবারো আন্দোলনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া আবু জাফর হোসাইন। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে আমাদেরকে ফোন দিয়ে জানানো হয় কোনো প্রকার সিদ্ধান্ত ছাড়াই রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভা মুলতবি করা হয়েছে। বিষয়টি জানার পরে আমরা ভারপ্রাপ্ত ভিসি স্যারকে ফোন দেই। তখন তিনি বলেন, আজ এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্তে আসা যায়নি। তোমরা ক্লাস-পরীক্ষাতে ফেরো। আমরা আবার সিন্ডিকেট সভায় বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবো। তখন আমরা পরদিনই আবার এই সিন্ডিকেট সভা বসবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপাতত এক মাসের মধ্যে এই সভা বসার সম্ভাবনা নেই। এই শিক্ষার্থী আরও বলেন, আমরা তাদের প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমাদের সকল প্রকার আন্দোলন স্থগিত করেছিলাম। কিন্তু যেহেতু আমরা এর সমাধান পাচ্ছি না, তাই শুক্রবার রাত ৮টা থেকে আবারও আমরণ অনশন শুরু করলাম।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ও ট্রেজারার আব্দুল লতিফকে একাধিকবার মুঠোফোনে চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় এ ঘটনায় গঠিত ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. সোহরাব আলীর কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ঢাকার ধানমন্ডিস্থ আবাসন ভবন অফিসে এই সিন্ডিকেট বৈঠক শুরু হয়। টানা ৩ ঘণ্টা বৈঠক চলার পর কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই রাত সাড়ে ৭টার দিকে এ বৈঠক শেষ হয় বলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে। তবে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অনশনের মধ্য দিয়ে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠল।

উল্লেখ্য, গত ২৬ সেপ্টেম্বর পরীক্ষার হলে প্রবেশের সময় রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে ওই বিভাগের প্রথম বর্ষের ১৪ ছাত্রের মাথার চুল কেঁচি দিয়ে কেটে দেয়ার অভিযোগ ওঠে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here